যার অবদানে ১৮ কোটি মানুষ আজ স্বাধীন বাংলাদেশে বসবাস করতে তিনি হলেন বাঙালি জাতির নায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবু রহমান। যিনি ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ মহান ভাষনের মাধ্যমে বাংলার প্রতিটি মানুষের মনে সাহস জুগিয়েছিলেন। তার আত্মত্যাগের কথা কখনো এ বাংলার মানুষ ভুলে যাবে না।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন বসবে মার্চের ২২ ও ২৩ তারিখে।
এতে বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে আলোচনা করবেন সাংসদরা।
সাংসদদের কাছে আমার প্রশ্ন , বঙ্গবন্ধুর জীবনী পড়ে আপনারা এই শিখেছেন?
মহামারীর সময়ে উনাকে নিয়ে আলোচনার জন্য সংসদের বিশেষ অধিবেশন ডাকার দীক্ষা পেয়েছেন উনার জীবনী পড়ে?

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আলোচনার বহু সময় পাবেন।
সংসদের বিশেষ অধিবেশন না ডেকে বরং করোনা প্রতিরোধের কথা ভাবুন। প্রয়োজনে নিজের এলাকায় গিয়ে কাজ করুন।

বর্তমানে বাংলাদেশের অবস্থা খুব একটা ভালো এমনটা বলা অনেক কঠিন হয়ে দাড়িয়েছে। গতকাল যেখানে দেশে ১৪ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিল, সেখানে আজ করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ১৮ জন। এবং ইতিমধ্যে একজনের প্রানহানিও ঘটেছে।