দেশজুড়ে আলোচিত ঢাকা রাজধাণীর কলাবাগানে শিক্ষার্থী আনুশকাকে //ধ//র্ষ//ণ/ ও হ//ত্যা//র// ঘটনায় দায়ের হওয়া মা/ম/লায় আটককৃত তা/নভী/র ইফতে/ফার দিহান অপরাধী প্রমানিত হলে দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী এবার সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানালেন তারই মা সানজিদা সরকার। রোববার (১০ জানুয়ারি) তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সংবাদ মাধ্যমকে এমনটা জানান।
/
আনুশকার মৃ//ত্যু/র ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে তিনি ঘটনার সঠিক তদন্ত এবং সু//ষ্ঠু/ বিচারও দাবি/ করেন। তিনি বলেন, আমার ম/নের অব/স্থা/ খুব /খা/রা//প/।/ কথা বলার মতো অবস্থায় নেই আমি। ফা/র/দি/নের বাবা আ/ব্দু/র রউফ সরকার এই ঘ/টনার পরে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বর্তমানে তিনি কলাবাগানের বাসায় আছেন। মানবজমিন

আমি যদি এখন ফারদিন সম্পর্কে ভালো কথা বলি তাহলে একটি প্রশ্ন তো থেকেই যায়। সবাই বলবে, ফারদিন ভালোই যদি হবে তাহলে কেন এই দু/র্ঘ/ট/না/টি ঘটালো। ফারদিনের সঙ্গে যদি আনুশকার একটি স/ম্প/র্ক থেকে থাকে /সেটা/তো অন্যায় হিসেবে দেখছি না।

তিনি বলেন, ঘটনার দিন আ/মা/র বাবা অ/সু/স্থ ছিলেন। তাকে দেখতে /সিরাজ/গঞ্জে/ যাই। ফারদিন-আনুশকা/র স/ম্প/র্কের বিষয়টি আমি আগে থেকে জানতাম না। তাছাড়া আমার ছেলে ফারদিন ওভাবে বাসা থেকে কোথাও বের হতো না। আমি থাকা অবস্থায় এ রকম কখ/নো কোনো /কিছু ক/রতে দেখিনি। এই ঘটনার পরে আমি কল্পনাও করতে পারিনি যে আমার ছেলে এটা করতে পারে।/ধ্যে তার দোষ /স্বী/কার করেছে এবং যদি সে অন্যায় করে থাকে তাহলে তাকে আদালত যে শাস্তি// দিবেন আমি মাথা পেতে নিবো।

ফারদিনের মা বলেন, এমন কিছু হবে /আমি যদি /ঘুর্ণা/ক্ষরে/ও জা/নতাম তাহলে ফারদিনকে কখনোই একা বাসায় রেখে যেতাম না। প্রথমে একজন নারী এবং পরে মা হিসেবে এ ঘটনা মেনে নেয়া খুবই কষ্টকর। পুরো ঘটনাটিকে বোঝার চেষ্টা করেছি। ফারদিনের বন্ধুদের কাছ থেকে জানার চেষ্টা করেছি ফারদিনের উদ্দেশ্য এমনটা ছিল কি না? একজন নারী হিসেবে কোনো মেয়ে বা কিশোরীর এ বিষয়টি কখনোই প্রত্যাশা করি না।


এদিকে এ ব্যাপারে কলাবাগান থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) ঠাকুর দাস মালো সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, এ ঘটনার পূর্বে আনুশকাকে চে/ত/না/না/শক কিছু খাওয়ানো হয়েছিল কি না সেজন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। রিপোর্ট পাওয়ার পর এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যাবে বলে জানান তিনি।