চলতি মাসের গত শনিবার (০৯ জানুয়ারি) রাতে পশ্চিমবঙ্গের বাগুইআটিতে সুইটি কোর নামে এক বার নৃত্যশিল্পী /মৃ/ত/দেহ/ উদ্ধার করে দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আর এরপরই তদন্তের এক পর্যায়ে জানা যায়, তাকে প/রি/ক/ল্পী/ত/ /ভা/বে/ই /দু/নিয়া থেকে সড়িয়ে দেয়া হয়েছে। তবে ইতিমধ্যে এ ঘটনায় জড়িত মুল হোতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সুইটি কোর নামে ওই বার নৃত্যশিল্পী /নি/হ/তে/র/ ঘটনায় মূ/ল অভিযুক্ত সৌরভ চক্রবর্তীকে গ্রেপ্তার করেছে বা/গুই/আ/টি থানার পুলিশ। ঘটনার তিন দিনের মাথায় ধরা পড়ল অভিযুক্ত। ধৃত সৌরভ চক্রবর্তীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এ ঘটনার কারণ জানার চেষ্টা করছেন তদন্তকারীরা।
খতিয়ে দেখছেন এ ঘটনায় আর কেউ জড়িত আছে কি না। ধৃত সৌরভ চক্রবর্তী পেশায় একজন ড্রাইভার।

জানা গেছে, ইস্ট মল রোডে মৃণাল কান্তি মণ্ডল নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে ভাড়া থাকতেন সুইটি। শনিবার রাতে তালা ভেঙে উদ্ধার করা হয় বার নৃত্যশিল্পী সুইটিকে। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, পুরুষ সঙ্গী সৌরভ চক্রবর্তীর সঙ্গে থাকতেন ওই তরুণী।

৩১ ডিসেম্বর সুইটিকে শেষবার দেখা গিয়েছিল। তার পর থেকে তাঁকে আর কেউ দেখেননি। তদন্তে আরো উঠে আসে, আজিজুল ইসলাম নামের এক যুবককে সৌরভই সবার প্রথমে হোয়াটস অ্যাপে জানায় যে সে সুইটিকে শেষ করে দেয়া হয়েছে। এই আজিজুলের গাড়িচালক সৌরভ চক্রবর্তী। আবার আজিজুলের সঙ্গে সুইটির বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কও রয়েছে বলে জানিয়েছে জি নিউজ।

এদিকে দেশটির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, এ ঘটনায় ত্রিভুজ প্রেমের সম্ভাবনার কথা একেবারে হালাকা ভাবে নিচ্ছে না পুলিশ। তবে কেন তাকে মারা হয়েছে, যে বিষয়ে এখনও কিছুই জানা যায়নি। তবে এ বিষয়ে তদন্তের কাজ চলমান রয়েছে বলে জানা যায়।