দেশে মহামারী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই তা প্রতিরোধে কোনো সঠিক পদক্ষেপ নেয়নি বলে একের পর এক এমন অভিযোগ উঠেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিরুদ্ধে। আর এরই মধ্যে আজ মঙ্গবার (৩০ জুন) সংসদে প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে সরিয়ে দেওয়ার প্রস্তাব করেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান। তবে এ প্রস্তাবের পরিপেক্ষিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী নিজেই এর জবাব দেন।

তিনি বলেন, করোনা মহামারি ব্যবস্থাপনায় মন্ত্রণালয়ের কোনো সমন্বয়হীনতা নেই, যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলেই দেশে এখনো মৃত্যুর হার কম।


স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চীনে কোভিড শুরু হওয়ার পর থেকেই আমরা বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া শুরু করেছি। বন্দরগুলোতে স্ক্যানের ব্যবস্থা করেছি। অন্য কোনো দেশ তখনও এটা করতে পারেনি। আমরাই প্রথম এটা করেছি। চায়না থেকে লোক দেশে এলে আমরা তাদর কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা করেছি। আমরা কাজ করছি না এই অভিযোগ ঠিক না।

’ডাক্তার নার্সরা প্রথমে আক্রান্ত হয়েছেন কারণ তারা পিপিই কীভাবে পরতে হয় জানতো না। আমরা তাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছি। পেশেন্ট গাইড, লিফলেট, ব্যানার করেছি। প্রতিদিন প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছি। মানুষকে করোনা সম্পর্কে সচেতন করেছি।’

তিনি বলেন, এই করোনা ভাইরাসের ৮০ শতাংশ উপসর্গ বোঝা যায় না। ১৫ শতাংশের উপসর্গ মাইল্ড। আমাদের দেশে মু’ত্যু’র হার কম, ১ দশমিক ২৬। এই মু’ত্যু’র হার এমনি কম না, আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি তাই মৃত্যুর হার কম।

’আমাদের একটি টেস্ট ল্যাব ছিল। দেড় মাসে আমরা ৬৮টি ল্যাব করেছি। কোটি কোটি মানুষকে তো আর টেস্ট করতে পারবো না। দেশে ৪শ ডেন্টিলেটর রয়েছে। কাজে লাগে মাত্র ৫০টি। সাড়ে তিন শটি পড়ে থাকে। যারা ভেন্টিলেশনে যান দেখা গেছে তারাই মারা গেছেন। কোনো হাসপাতালে সেবা পাচ্ছে না এমন কোনো বিষয় নেই। আমাদের ১৪ হাজার বেড আছে, রোগী আছে ৪ হাজার। মানুষ যদি সচেতন হয়, মাস্ক পরে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখে তাহলে সংক্রমণ কমে যাবে।

’আমরা কিছু করিনি এটা ঠিক না। বসুন্ধরা হাসপাতাল বানালাম কীভাবে। মাত্র ২৫ দিনে ২ হাজার বেডের হাসপাতাল বানিয়েছি। আমরা কোথাও যাইনি এটা ঠিক নয়।’

এর আগে দেশের স্বাস্থ্য খাতের ভঙ্গুর চিত্র তুলে ধরে পীর ফজলুর রহমান বলেন, দেশের স্বাস্থ্য খাত দুরাবস্থার মধ্যে পড়ে আছে। আমাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নাকি মিনা কার্টুনের টিয়া পাখির দ্বারা চলছে। আমি গ্রামে গ্রামে ঘুরি। সেইসব গ্রামের মানুষ আমাকে বলেছেন যে, আপনি তো সংসদে কথা বলতে পারেন। আপনি প্র্রধানমন্ত্রীকে বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে সরিয়ে অন্য কোনো মন্ত্রণালয়ে দিতে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব সাবেক কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরীকে দেওয়ার কথা বলেন। আমি প্রধানমন্ত্রীকে মানুষের এই কথাটি জানালাম।


উল্লেখ্য, মরনঘাতী নভেল করোনা ভাইরাসের তাণ্ডবে দেশে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৩ হাজার ৬৮২ জন করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় দেশে মোট করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ১ লাখ ৪৫ হাজার ৪৮৩ জন, এবং মৃত্যুর সংখ্যা দাড়িয়েছে ১ হাজার ৮৪৭ জন। এদিকে আক্রান্তের মধ্যে থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৯ হাজার ৬২৪ জন।