করোনার দ্বিতীয় আসতেই ফের আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে থাকায় যেন গোটা দেশজুড়ে নেমে এসেছে আতঙ্কের ছায়া। তবে এ দেশ ও দেশের মানুষকে এই অদৃশ্যে শত্রুর হাত থেকে নিরাপদে রাখার লক্ষ্যে সম্প্রতি কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছিলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর এরই জের ধরে এবার দ্বিতীয় দফায় সাত দিনের ’কঠোর লকডাউন’ ঘোষণা করেছে সরকার। আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে এ লকডাউন শুরু হবে।
সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সর্বাত্মক লকডাউনের প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

এতে বলা হয়, ১৪-২১ এপ্রিল অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া নিষেধ করা হয়েছে।

তবে ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসাসেবা, ম/র/দেহ দাফন/সৎকারে বের হওয়া যাবে। এছাড়া টিকাকার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে টিকা নিতে যাতায়াত করা যাবে।


তবে এখন পর্যন্ত কোনো দেশই করোনার উল্লেখযোগ্য ভ্যাকসিন আবিষ্কার করতে পারেনি, সেহেতু মরন এ ভাইরাসের কবল থেকে বেঁচে থাকতে মাস্ক ব্যবহারের কোনো বিকল্প নেই। প্রথমত ঘরের জরুরী কোনো কারন ছাড়া ঘরের বাইরে যাওয়া যাবে না, আর যদি যেতেই হয় তাহলে মাস্ক অবশ্যই ব্যবহার করতে হবে।