করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে রীতিমতো লণ্ডভণ্ড বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশই। আর এই তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশেও। জানা গেছে, গত ২৪ ঘন্টায় বন্দরনগরী চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন আরও ১১ জন। যা এখন পর্যন্ত চট্টগ্রামে এটাই ছিল একদিনে সর্বোচ্চ মৃ/ত্যু/র রেকর্ড। এ ছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১৭১ জন। এ নিয়ে চট্টগ্রাম জেলায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৪৯৮। আর শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৮ হাজার ৮৮৭ জনে।
রোববার (২৫ এপ্রিল) চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা যায়।

সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি জানান, গতকাল (শনিবার) চট্টগ্রামের বিভিন্ন ল্যাবে এক হাজার ৩৩০ নমুনা পরীক্ষায় ১৭১ জনের দেহে করোনার জীবাণু শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে নগরের ১৪১ জন এবং উপজেলার ৩০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি ল্যাবে ৪৩ জন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৩৫ জন, ইমপেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ২৪ জন এবং শেভরন হাসপাতাল ল্যাবে ৩৫ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়। একই সময়ে জেনারেল হাসপাতাল আরটিআরএল ল্যাবে ৩২ এবং মেডিকেল সেন্টার ল্যাবে দু’জনের দেহে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়।


এদিকে দেশে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট সংক্রমিত হয়েছে ৭ লাখেরও অধিক, এছাড়া প্রতিনিয়ত বাড়তে মৃত্যুর সংখ্যাও। সেহেতু মরণ এ ভাইরাসের সংক্রমন প্রতিরোধে মাস্ক ব্যবহারের পাশাপাশি সতর্কতামূলক সকল নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। একই সাথে নাক-মুখে হাত লাগানো থেকে বিরত থাকতে হবে। অন্তত ২০ সেকেন্ড ধরে ভালো করে হাত ধুয়ে নিতে হবে।