সম্প্রতি মহামারী করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের তাণ্ডবে নতুন করে করোনা সংক্রমন বাড়তে থাকায় বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি জেলায় এক সপ্তাহের কড়া লকডাউনের ঘোষণা দেয় প্রশাসন। এর মধ্যে একটি রয়েছে সাতক্ষীরা জেলা। তবে চলমান লকডাউন শেষ না হতেই এক অপ্রিতীকর ঘটনা ঘটল সেখানে। জানা গেছে, সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলায় করোনার বিধি-নিষেধ উপেক্ষা করে বিয়ে করতে যাওয়ার সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ধরা খেয়ে জরিমানা দিয়ে ফিরে গেলেন নাবালক বর।
সোমবার (১৪ জুন) দুপুরে উপজেলার গাজীরহাট বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে এই ঘটনা ঘটে।


জানা গেছে, সাতক্ষীরা থেকে কালীগঞ্জ অভিমুখে যাওয়া বরসহ বরের আত্মীয় স্বজনবাহী মাইক্রোবাসটি আটক করেন দেবহাটার ইউএনও তাছলিমা আক্তার। তারা বিয়ের উদ্দেশ্যে কালীগঞ্জ উপজেলার চালতেবাড়িয়া গ্রামে কনের বাড়িতে যাচ্ছিলেন বলে জানালে তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৩ হাজার টাকা জরিমানাসহ মুচলেকা নিয়ে বাড়ি ফিরিয়ে দেন ইউএনও। পাশাপাশি কনের বাড়িতেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কালীগঞ্জের ইউএনওকে বিষয়টি অবহিত করেন তিনি।



এদিকে সংবাদ মাধ্যমকে এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ইউএনও তাছলিমা আক্তার জানান, চলমান করোনার বিধি-নিষেধ উপেক্ষা করে আত্মীয় স্বজনদের নিয়ে বিয়ের উদ্দেশ্যে কালীগঞ্জের চালতেবাড়িয়া গ্রামে যাচ্ছিল বর অপ্রাপ্ত বয়স্ক আবু রায়হান। তবে পথেই তাদের আটক করে জরিমানা ও মুচলেকা নিয়ে তাদেরকে পুনরায় বাড়িতে ফেরত পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।