বিবাহবার্ষিকীতে স্ত্রীকে খুশি করার জন্য বিশেষ কিছু পরিকল্পনা করে থাকেন প্রায় স্বামীরা। কেউ নিয়ে যান ঘুরতে, আবার কেউ কিনে দেন দামি প্রসাধনী। তবে এবার যে ঘটনাটি ঘটেছে তা রীতিমতো অবাক করার মতই। জানা যায়, বিবাহবার্ষিকীতে স্ত্রীকে চাঁদের জমি কিনে দেন ভারতের এক ব্যক্তি। আর এটা দেখে স্ত্রী টুম্পাকেও চাঁদের জমি উপহার দেওয়ার ইচ্ছা জাগে সাংবাদিক এমডি অসীমের। যেই ভাবনা সেই কাজ। আজ বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ষষ্ঠ বিবাহবার্ষিকীতে ’চাঁদের এক একর জমি কিনে’ স্ত্রীকে উপহার দিয়ে নজীবিহীন এক ঘটনার জন্ম দেন অসীম।

এমডি অসীম দেশটিভির খুলনা বিভাগীয় প্রতিনিধি। তার বাড়ি গোপালগঞ্জ হলেও পেশাগত দায়িত্বে তিনি স্ত্রীকে খুলনা মহানগরীর মডার্ন মোড় এলাকায় বসবাস করেন।


চাঁদের জমি লিখে দেওয়ার বিষয়ে অসীম বলেন, আমার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ছিল বিবাহবার্ষিকীতে স্ত্রীকে স্পেশাল কিছু উপহার দেব। গত বছর জানতে পারলাম ভারতের এক ব্যক্তি বিবাহবার্ষিকীতে স্ত্রীকে চাঁদের জমি কিনে দিয়েছেন। এ ঘটনা জানতে পেরে আমিও চাঁদের জমি কিনে স্ত্রীকে উপহার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।

তিনি আরও বলেন, ২০ সেপ্টেম্বর মার্কিন নাগরিক ডেনিস হোপের ’লুনার অ্যাম্বাসি’ থেকে ৪৫ ডলারের বিনিময়ে এ জমি কিনেছি। জমি কেনার পর আমাদের একটি বিক্রয় চুক্তিনামা, কেনা জমির একটি স্যাটেলাইট ছবি এবং জমিটির ভৌগোলিক অবস্থান ও মৌজা-পর্চার মতো আইনি নথিও পাঠিয়েছে সংস্থাটি৷

স্ত্রী ইসরাত টুম্পা বলেন, চাঁদের দেশে এক টুকরো জমি উপহার পেয়ে আমি দারুণ উচ্ছ্বসিত। গত বছর ভারতের একটি ঘটনা দেখে আমার স্বামী ইচ্ছা পোষণ করেছিল। এবার বিবাহবার্ষিকীতে সে আমাকে সত্যি সারপ্রাইজ গিফট দিতে পেরেছে। উপহারটি পাওয়ার পর আমার মনে হচ্ছিল আমি যেন স্বপ্নের চাঁদে চলে গেছি।


বেশ জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে গত ২০১৫ সালে দুই পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে টুম্পার সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন সাংবাদিক এমডি অসীম। বর্তমানে তাদের ঘরে ৪ বছরের একটি সন্তান রয়েছে। গত ৬ বছর ধরে দাম্পত্য জীবন বেশ ভালই কাটছে তাদের।