বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই ভক্ত-অনুরাগীদের মাঝে নিজের জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছেন তিনি। তবে সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে রীতিমতো নানা সমালোচনায় জড়িয়ে পড়েছেন এই গুণী কণ্ঠশিল্পী। বিশেষ করে স্ট্যাটাসে তিনি জানিয়েছেন, তিনি এখন আর দ্বিতীয় স্বামীর সংসারে নেই। অনেক দিন ধরেই আলাদা থাকছেন। তবে দুজনের মধ্যে বিচ্ছেদ হয়নি। আর তাই এ বিষয়টি নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে বেশি আলোচনা সমলোচনা হচ্ছে। তবে ওসবে কান দিতে নারাজ ন্যান্সি। তিনি বলেন, কে কি বলছেন তার চেয়ে বড় কথা হলো, বিষয়টি সামাজিক মাধ্যমে জানিয়ে আমি বেশ তৃপ্ত।
ন্যান্সি বলেন, যেটা ঘটে গেছে সেটা মনের মধ্যে চেপে রেখে কষ্ট বাড়িয়ে লাভ নেই। সবাই যখন বাস্তব অবস্থাটা জেনে যাওয়ার পর খুব হালকা লাগছে আমার।

বিচ্ছেদ হয়নি অথচ থাকা হচ্ছে আলাদা। এর মূল কারণটা নাকি ন্যান্সির নিজেরও অজানা। এ সম্পর্কে তিনি বলেন, আলাদা থাকার কারণটা আমি নিজেও সেভাবে জানি না। তবে আমাদের সম্পর্কটা বেশ শীতল হয়ে যাচ্ছিলো। মনে হলো এভাবে আর একসাথে থাকা যায় না। তারপরই এমন সিদ্ধান্ত নিলাম। এমনও হতে পারে জায়েদের সাথে আমার কোনোদিনই বিচ্ছেদ হবে না। আর এখন আমার মেয়ে রোদেলার বিয়ের প্রস্তাব আসছে! আমি নতুন করে জীবন শুরু করার চিন্তা করছি না।

তবে সেটা তো সময়ের ওপর নির্ভর করে? ন্যান্সি বলেন, তা ঠিক। অবশ্যই সময় ও পরিস্থিতির ওপর অনেক কিছুই নির্ভর করে। তাই সময়ের ওপরই সব ছেড়ে দিয়েছি। তবে জীবন একটাই। আমি জীবনটাকে জটিলতার মাঝে রাখতে চাই না। এদিকে লকডাউনের পর পরই নতুন কয়েকটি গানের কাজ রয়েছে বলে জানালেন ন্যান্সি। এ গায়িকা বলেন, এরমধ্যে অনুপম মিউজিকের একটি গানের রেকর্ডিং ও শুটিং রয়েছে। গানটি আসছে ঈদেই প্রকাশ হবে। সিএমভির ব্যানারেও একটি কাজ করার কথা রয়েছে। আর হাবিব ভাইয়ের একটি গানে কন্ঠ দেবো। আমি লকডাউনের পর ঢাকা ফিরেই কাজগুলোর করবো। ন্যান্সি যোগ করে বলেন, আমার গান ছাড়াও আমার বড় কন্যা রোদেলারও নতুন গান আসবে সামনে। দুটি গান প্রকাশ হবে ওর। সেগুলোর রেকর্ডিংও রয়েছে লকডাউনের পর।


প্রসঙ্গত, ২০০৬ সালে ’হৃদয়ের কথা’ সিনেমায় গানে কন্ঠ দেওয়ার মধ্যদিয়ে কর্মজীবন শুরু করেন ন্যান্সি। এছাড়া ২০১১ সালে ’প্রজাপতি’ সিনেমায় গান গেয়ে প্রথমবারের মতো হাতিয়ে নেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। তার গাওয়া প্রতিটি গান’ই ভক্ত ও অনুরাগীদের মন কেড়েছে।