ঢাকাই সিনেমার অন্যতম জনপ্রিয় ও খ্যাতিমান অভিনেতা বাপ্পি চৌধুরী। যিনি অভিনয়ের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত সমানতালে বড় পর্দায় রাজ করে চলেছেন। তবে দীর্ঘ ৩৪ বছর পেড়িয়ে গেলেও এখনো বিয়ের পিঁড়িতে বসেননি এই তারকা। যদিও কয়েক বছর ধরে বাবা-মা তার বিয়ের জন্য পাত্রী দেখছেন বললেও এখনো বিয়ের কোনো নামগন্ধই নেই। তবে অবশেষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে এবার অন্য রকম ইঙ্গিত পাওয়া গেল। বাপ্পি চৌধুরী জানালেন, চিত্রনায়িকা পূর্ণিমার জন্য বিয়ে করছেন না তিনি। আছেন তারই অপেক্ষায়। কারণ পূর্ণিমাই তার ’ক্রাশ’।
চিত্রনায়িকা পূর্ণিমার জন্মদিন ছিল রবিবার। বিশেষ দিনে ফেসবুকে তাকে উইশ করে ক্যাপশনে বাপ্পি জানিয়ে দিয়েছেন তার মনের কথা। দুজনের একটা ছবিও পোস্ট করেছেন বাপ্পি।বাপ্পি লিখেছেন, ’আপনি আমার ক্রাশ। এ জন্য এখনো বিয়ে না করে আপনার জন্য অপেক্ষা করছি। শুভ জন্মদিন পূর্ণিমা আপু।’

এমন কায়দায় জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানোয় ভক্তদের অনেকেই প্রশ্ন করছেন- সত্যিই কি পূর্ণিমাকে বিয়ে করতে চান বাপ্পি? ভক্তদের এই প্রশ্ন নিয়ে যোগাযোগ করা হয় বাপ্পির সঙ্গে। প্রশ্নটি রাখতেই হেসে ওঠেন বাপ্পি। উত্তরে কিছুটা রহস্য রাখতে চান। পরক্ষণেই বাপ্পি বলেন, ’আরে পূর্ণিমা হচ্ছেন আমাদের আপু। অভিনেত্রী এবং ব্যক্তি হিসেবে তাকে আমার খুবই পছন্দ। তিনি নিজের সৌন্দর্য কত সুন্দরভাবে মেইনটেইন করছেন- বিষয়টি আমার খুবই ভালো লাগে। অনেকের মতো সত্যি সত্যিই পূর্ণিমা আপু আমার ক্রাশ। তাই কিছুটা মজা করেই জন্মদিনে এটা লিখে উইশ করেছি তাকে।’

বাপ্পি জানান, পূর্ণিমার উপস্থাপনায় জনপ্রিয় টেলিভিশন শো ’এবং পূর্ণিমা’তে অতিথি হয়েও তাকে কথাগুলো জানিয়েছিলাম।

বাপ্পি চৌধুরী ও পূর্ণিমাকে একসঙ্গে কোনো সিনেমায় দেখা যায়নি। আগামীতে দেখা যাবে কি না জানতে চাইলে বাপ্পি বলেন, ’আমার তো কোনো আপত্তি নেই। যদি তেমন কোনো গল্পের ছবির প্রস্তাব আসে পূর্ণিমা আপুও রাজি হন, তাহলে ভালোই হবে।’



প্রসঙ্গত, ২০১২ ’ভালোবাসার রঙ’ সিনেমায় অভিনয়ের মধ্য দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক ঘটান বাপ্পি চৌধুরী। এবং এতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন মাহিয়া মাহী। সিনেমাটি ভক্তদের মাঝে বেশ সাড়া ফেলার মধ্যদিয়ে ব্যাপক পরিচিতি পান বাপ্পি। তার অভিনীত উল্লেখোযগ্য সিনেমার মধ্য রয়েছে- জটিল প্রেম, রোমিও, অনেক সাধের ময়না, লাভার নাম্বার ওয়ান।