সারা দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়া মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমন নিয়ন্ত্রণে এলেই চলতি ২০২১ সালের আগামী নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। একই সাথে তিনি ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথাও জানিয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ভার্চুয়ালি সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান মন্ত্রী। এসময় তিনি এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা কিভাবে হবে সে বিষয়টি বিস্তারিত তুলে ধরেন। ডা. দীপু মনি বলেন, পরিস্থিতি অনুকূল হলে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে শুধু নৈর্ব্যক্তিক বিষয়ে নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে এসএসসি এবং ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে এইচএসসি পরীক্ষা নেয়া হবে। যদি পরীক্ষা গ্রহণ করা সম্ভব না হয় সেক্ষেত্রে পূর্ববর্তী জেএসসি-জেডিসি-এসএসসির ভিত্তিতে এবং অ্যাসাইনমেন্টের ভিত্তিতে এসএসসি-এইচএসসির মূল্যায়ন করা হবে।

তিনি বলেন, চলতি মাস থেকে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য ১২ সপ্তাহে ২৪টি অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হবে। এবং এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য ৩০টি অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হবে। সংক্ষিপ্ত সিলেবাস কাভার করেই নেওয়া হবে এসএসসি ও এইচএসসি।

ডা. দীপু মনি বলেন, অ্যাসাইনমেন্টগুলো নেওয়া হবে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার প্রস্তুতি হিসেবে। আবশ্যিক বিষয়গুলোর মূল্যায়ন হবে সাবজেক্ট ম্যাকিংয়ের মাধ্যমে। আর যদি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব না হয়, তবে অ্যাসাইনমেন্ট ও সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে মূল্যায়ন হতে পারে। তখন আমরা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবো।


প্রসঙ্গত, অন্যান্য দেশের পাশাপাশি গত বছরের ৮ মার্চ প্রথমবারের মতো বাংলাদেশেও হানা দেয় করোনা সংক্রমন। এরপর ধীরে ধীরে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা একে একে বাড়তে থাকায় উক্ত বছরের ১৭ মার্চ দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় প্রশাসন। আর সেই থেকে এখনো দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।