শ্বশুরের অসুস্থতার খুবর পাওয়া মাত্রই বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের ফাইনাল না খেলেই গত বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে দেশ ত্যাগ করেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার ও বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম তারকা সাকিব আল হাসান। কিন্তু দুর্ভাগ্যবসত গন্তব্যে পৌঁছানোর আগেই দুঃসংবাদ শুনতে হলো এই তারকাকে। শশুরকে আর জীবিত পেলেন না তিনি। সাকিবের ঘনিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, তার শ্বশুর মমতাজ আহমেদ (৭২) আর নেই। সাকিব পৌঁছার আগেই, আজ দুপুরে ইন্তিকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।
প্রায় তিন দশক ধরে যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিস স্টেটে প্রবাসী সাকিবের শ্বশুর মমতাজ উদ্দিন দীর্ঘদিন শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। কিছুদিন আগে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে।

বঙ্গবন্ধু কাপ টি-টোয়েন্টিতে জেমকন খুলনার হয়ে খেলছিলেন সাকিব। দলকে ফাইনালেও তুলেছিলেন তিনি। কিন্তু সেই ফাইনাল না খেলেই শ্বশুরের অসুস্থতার কথা শুনে ছুটতে হয় যুক্তরাষ্ট্রে। কিন্তু কি দুর্ভাগ্য, তার পৌঁছানোর আগেই মৃত্যু বরণ করলেন স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশিরের বাবা।

সাকিবের শ্বশুরের মূল বাড়ি বাংলাদেশের নরসিংদীতে। যুক্তরাষ্ট্র থেকে নিজের এলাকায় তার মরদেহ আনা হবে কি না, সেটি এখনো নিশ্চিত নয়। সাকিব যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছানোর পর নেওয়া হবে সিদ্ধান্ত।

শ্বশুরের মৃত্যুর মাত্র দু’দিন আগে আরো একটি দুঃসংবাদ পেয়েছিলেন সাকিব। গত সোমবার /মৃ/ত্যু/ব/র/ণ করেন তার ফুফা ওমর আলী (৬৬)। তাকে দাফন করা হয়েছে মাগুরায়।


গত বছর ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে ক্রিকের খেলাসহ অন্যান্য সবধরণের খেলা থেকে সাকিবকে ১ বছরের নিষেধাজ্ঞা দেয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। অবশেষে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটানোর পর বঙ্গবন্ধু কাপ টি-টোয়েন্টি দিয়েই ক্রিকেটে ফিরেন সাকিব। কিন্তু এখনও পর্যন্ত মাঠে কোনো পারফরম্যান্স দেখাতে পারেননি এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।